পঞ্চগড়ের বোদায় ছেলে ধরা সন্দেহে রুমি আক্তার নামে একজন আটক

Share The News and also now People

  আব্দুল্লাহ্ আল মামুন (প্রতিনিধি) : বোদা পঞ্চগড় শনিবার বিকেলে বোদা পৌর এলাকার ঝিনুক নগর গ্রামের লন্ড্রি ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলামের বাড়ি থেকে ছেলে ধরা সন্দেহে রুমি আক্তার নামে ১৬ বছর বয়সের এক মেয়েকে আটক করে বোদা থানা পুলিশি হেফাজতে দেয় বাড়ির মালিক। খবরটি মুহুর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে শত শত উৎসুক জনতা মেয়েটিকে দেখার জন্য বাড়িতে ভির জমায় । শত শত উৎসুক জনতাকে সামাল দিতে না পারায় থানায় খবর দেয়া হয়। পরে পুলিশ আসলে সম্পূর্ণ ঘটনা বলা হয়। আনুমানিক ২টার দিকে পুলিশ পরিচয়ে এই নারী বাসা ভারা নিতে আসে, কিন্তু বাড়ির মালিক তার কাছে সঠিক পরিচয় পত্র চাইলে দিতে না পারায় আর মেয়েটি কথার মাঝে ওলট পালট করায়, বাড়ির মালিকের সন্দেহ হয়, তারা তাত্ক্ষণিক বোদা থানায় খবর দেয়, বোদা থানার পুলিশ আসতে দেরি করায় হাজার হাজার উৎসুক জনতা মেয়েটিকে দেখার জন্য বাড়িতে ভির জমায়, পরে পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়, পরে বাড়ির মালিক রফিকুল ইসলাম  মেয়েটিকে পুলিশের হাতে তুলে দিলে উৎসুক জনতা ক্ষিপ্ত হয়ে মেয়েটিকে গনপিটুনি দেয়, সেয়েটিকে উদ্ধার করতে গিয়ে কিছু পুলিশ সদস্য আহত হয়।…, পরেও অনেক কষ্টে পুলিশ মেয়েটিকে থানায় নিয়ে আসে । পরে জানা যায় মেয়েটি ছেলে ধরা নয়, মেয়েটি আসলে মানসিক রোগী। মেয়েটির বাড়ি বোদা থানার পার্শ্ববর্তী বলরামপুর ইউনিয়নের উত্তর বলরামপুর গ্রামে। তার বাবার নাম রমজান । মেয়েটি লীলার মেলা মাদরাসায় দাখিল অর্থাৎ দশম শ্রেণীতে পড়ে। পরে মেয়েটির বাবা ও তার এলাকার চেয়ারম্যান মেয়েটি যে মানসিক প্রতিবন্ধী এর প্রমান দিয়ে মেয়েটিকে থানা থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »