দিনাজপুরে লিচু খেতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী

Share The News and also now People

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে বাগানে লিচু খেতে গিয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রী সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই অভিযোগে লিচু বাগানের পাহারাদার খলিল (২৩) এবং রনজিত দেবনাথ (৩০) নামে দুজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। বীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাকিলা পারভিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকিলা পারভীন স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানান, ওই ছাত্রীর বাবা-মা দুজনই ঢাকায় কাজ করেন। ছাত্রীটি ফুফুর বাড়িতে থাকে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার শতগ্রাম ইউনিয়নের রাঙ্গালীপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা গোপাল মাস্টারের লিচু বাগানে লিচু খেতে যায় ছাত্রীটি। এ সময় তাকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে বাগানের দুই পাহারাদার খলিল এবং রনজিত দেবনাথ। ছাত্রীটি বাগান থেকে কাঁদতে কাঁদতে বেরিয়ে যাওয়ার সময় আশেপাশের লোকজন তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এ সময় ওই ছাত্রীর অভিযোগ পেয়ে এলাকাবাসী দুই পাহারাদারকে আটক করে এবং পুলিশকে খবর দেয়।

খবর পেয়ে বীরগঞ্জ থানার এসআই আমজাদ আলীর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে বিকেল সাড়ে ৫টায় দুই ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে। গ্রেপ্তারকৃত খলিল এবং রনজিত দেবনাথ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। ধর্ষণের শিকার শিশুকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

বীরগঞ্জ থানার ওসি শাকিলা পারভিন জানান, খবর পাওয়া মাত্রই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে। ন্যায় বিচার পাওয়ার ক্ষেত্রে ভিকটিমের পরিবারকে পুলিশের পক্ষ থেকে সব রকমের সাহায্য করা হবে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »